About MR Laboratory

নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম | নগদ একাউন্ট খোলার পদ্ধতি | নগদ কল সেন্টার নাম্বার | nogod নিয়ে বিস্তারিত

 

নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম - নগদ একাউন্ট খোলার পদ্ধতি


নগদ কি?

বাংলাদেশ পোস্ট অফিসের টাকা পয়সা লেনদেন করার ডিজিটাল সার্ভিস হলো নগদ। বাংলাদেশ সরকার এর ডাক বিভাগের ডিজিটাল আর্থিক লেনদেন সেবা নগদ এর মাধ্যমে খুব সহজেই টাকা পয়সা যখন খুশি তখন লেনদেন করা যায়।

'নগদ' এর সেবা বাংলাদেশ ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সংযুক্ত বিভাগ বাংলাদেশ ডাক অফিসের কর্তৃত্বের অধীনে পরিচালিত হয়। তবে নগদ পরিচালনা করে থাকে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান থার্ড ওয়েভ টেকনোলজিস লিমিটেড। থার্ড ওয়েভ টেকনোলজিস লিমিটেড ২০১৯ সালের মার্চ মাসে 'নগদ' এর পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহন করে।


যদিও নগদ সরকারী একটি সেবা। তবে পুরোপুরি সরকারী সেবা নয়। থার্ড ওয়েভ টেকনোলজিস লিমিটেড 'নগদ' থেকে আয় কৃত মুনাফার অর্ধেক এর থেকে একটু বেশি লভ্যাংশ বাংলাদেশ সরকারের ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় কে প্রদান করে। সহজ কথায় বলতে গেলে আধা সরকারী ডিজিটাল আর্থিক লেনদেন সেবা হলো নগদ। তবে খুব শিগগিরই নগদ কে সরকারি ভাবে পরিচালনা করা হবে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী।

এই পোস্টে যা যা থাকছে - 

নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম 

নগদ একাউন্ট খোলার পদ্ধতি

নগদ একাউন্ট খোলার পদ্ধতি 

নগদ কল সেন্টার নাম্বার 

নগদ নিয়ে বিস্তারিত 


কিভাবে নগদ একাউন্ট খুলতে হয়?

নতুন একটি নগদ একাউন্ট খুলতে চাইলে আপনার নিকটস্থ যেকোনো নগদ উদ্যোক্তা অথবা নগদ এজেন্ট এর সাথে কথা বলে এনআইডি কার্ড, ছবি ও আপনার হাতের আঙ্গুল এর ঢ়াপ দিয়ে খুব সহজেই নগদ একাউন্ট খুলতে পারবেন।

এছাড়াও ঘরে বসেই আপনি আরো সহজেই নগদ একাউন্ট খুলতে পারবেন।  এজন্য আপনাকে নিচের প্রতিটি ধাপ অনুসরণ করতে হবে। নিচের প্রতিটি ধাপ অনুসরণ করে ঘরে বসেই নগদ একাউন্ট খুলুন।


  1. ধাপঃ প্রথমপ গুগল প্লে স্টোর থেকে নগদ এর অফিসিয়াল এপস টি ডাউনলোড করতে হবে।
  2. ধাপঃ নগদ এপস টি অপেন করলে নতুন একাউন্ট তৈরী তে ক্লিক করতে হবে।
  3. ধাপঃ প্রথমে আপনার এনআইডি কার্ড এর দুই সাইডের দুটি ছবি তুলতে হবে।
  4. ধাপঃ এরপরে আপনার নাম ও সব তথ্য ঠিক থাকলে পরবর্তী কে যেতে হবে।
  5. ধাপঃ এরপরে আপনাকে একটি ছবি তুলতে হবে। যে আইডি কার্ড এর ছবি তুলেছেন তারই ছবি তুলুন।
  6. ধাপঃ এর পরে তাদের শর্তাবলি গুলো তে আপনি রাজী তে টিক দিয়ে শেষ ধাপ এ পৌঁছাবে।
  7. ধাপঃ আপনার নগদ একাউন্ট তৈরী হয়ে গেছে। এখন চাইলে প্রোফাইলে ছবি দিতে পারেন। এখন এই একাউন্টে টাকা লেন দেন করতে পারবেন।


এছাড়াও প্রথমে আপনার ডায়াল প্যাডে গিয়ে ডায়াল করুন *১৬৭# (*167#).

এরপরে ৪ সংখ্যার পিন সেট করুন।

আপনার নতুন নগদ একাউন্ট খোলার কাজ শেষ হয়ে গেছে। এখন আপনি আপনার নগদ একাউন্ট দিয়ে যেকোনো ধরনের লেনদেন করতে পারবেন।


কিভাবে নগদ থেকে বিকাশ একাউন্ট টাকা ট্রান্সফার করবেন?

অনেকেই এই প্রশ্ন টা করে থাকেন যে, 'বিকাশ থেকে নগদে টাকা ট্রান্সফার করা কি সম্ভব?'। আপনাদের করা এই প্রশ্নের জবাব আমি দিবো দুই ভাবে।


প্রথম টা হলো নগদ থেকে বিকাশে সরাসরি টাকা পাঠানো সম্ভব না। হ্যাঁ! নগদ একাউন্ট থেকে এখন ও বিকাশ একাউন্টে টাকা লেনদেন করা যায় না। এটা অন্তত অফিশিয়াল ভাবেই লেনদেন করা যা না।

আরো পড়ুন ঃ কিভাবে প্লে স্টোর এপস ডাউনলোড করব

দ্বিতীয় প্রশ্নের উত্তর হলো, হ্যাঁ!  বিকাশ থেকে নগদে টাকা পাঠাতে পারবেন। কিভাবে?  ভাবছেন! ভাই কি পাগল হয়ে গেলো নাকি? প্রথমে বলে বিকাশ থেকে নগদে টাকা পাঠানো যায় না আবার পরে বলে বিকাশ থেকে নগদে টাকা পাঠাতে পারবেন! 


আসলে আপনি যদি একটু খেয়াল করেন আর একটু বুঝেন তাহলেই বিকাশ থেকে নগদে আর নগদ থেকে বিকাশে টাকা লেনদেন করতে পারবেন। যদিও সরাসরি লেনদেন করতে পারবেন না।

সেরা ব্লগার টেমপ্লেট ঃ ডিজাইন পাবলিশার ব্লগস্পট টেমপ্লেট

তবে পারবেন। বিকাশ থেকে নগদে টাকা পাঠাতে চাইলে আপনার প্রয়োজন পড়বে ব্যাংক একাউন্ট। প্রথমে নগদ এপস থেকে ব্যাংক টু নগদ এ ক্লিক করে আপনি যে টাকা বিকাশে পাঠাবেন সেই পরিমান টাকা নগদ থেকে ব্যাংকে পাঠিয়ে দিবেন।


এরপরে আপনার বিকাশ এপস এ ঢুকে ব্যাংক টু বিকাশ এর মাধ্যমে ব্যাংক এর টাকা আপনার বিকাশে আনতে পারবেন।

বিকাশ থেকে নগদে টাকা আনতে চাইলে প্রথমে নগদ থেকে ব্যাংক এ টাকা ট্রান্সফার করতে হবে। পরে ব্যাংক থেকে বিকাশে টাকা ট্রান্সফার করতে হবে।


এভাবেই বিকাশ থেকে নগদে টাকা ট্রান্সফার পারবেন। অথবা নগদ থেকে বিকাশে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন।

আরো পড়ুন ঃ হ্যাক হওয়া থেকে ফেসবুক আইডি বাচান

নগদ ইসলামিক একাউন্ট কি?

বাংলাদেশ একটি মুসলিম দেশ। বাংলাদেশের প্রায় ৯০% মানুষ মুসলিম। এই মুসলমাদের ধর্ম ইসলাম অনুযায়ী সুদ খাওয়া ও সুদ দেওয়া হারাম। তাই ডাক বিভাগের ডিজিটাল আর্থিক লেনদেন সেবা নগদ মুসলিম ব্যবহারকারীদের জন্য ইসলামিক একাউন্ট সেবা চালু করেছে।


এই ইসলামিক সেবা টি মুসলিম নগদ ব্যবহার কারীরা চালু করলে তাদের কাছে বা তাদের নগদ একাউন্ট এ কোন সুদ এর টাকা যোগ হবে না। নগদ একাউন্ট থেকে খুব সহজেই এই ইসলামিক সেবা টি চালু করা যায়।


এই ইসলামিক সেবাটি চালু করতে চাইলে প্রথমে গুগল প্লে স্টোর থেকে নগদ এর এপস টা নামাতে হবে। এরপরে পাসওয়ার্ড দিলে নগদ এর হোম পেজে নিয়ে আসলে ডান পাশে কত গুলো মেনু বার রয়েছে। ঐ মেনু বার এ টাচ করলে একটি ফিটার পাওয়া যাবে। আপনার একাউন্ট এর ধরন কি?


একটি অপশন থাকবে ইসলামিক আরেকটি থাকবে মুনাফা একাউন্ট। যদি ইসলামিক অপশন টি অন করে দেন তাহলে আপনার একাউন্ট টি ইসলামিক নগদ একাউন্ট হয়ে যাবে। আপনার এই অপশন চালু করার কারনে আপনি কোন সুদ বা মুনাফা পাবেন না।


আঃরো ঃ  স্মার্ট ক্যারিয়ার pdf free download

নগদ মুনাফা  একাউন্ট কি?

ডাক বিভাগের মোবাইল আর্থিক লেনদেন সার্ভিস নগদ তাদের ব্যবহারকারীদের জন্য সুদ বা মুনাফা নামে একটি সার্ভিস চালু করে। এই মুনাফা সার্ভিস চালু করার ফলে উক্ত নগদ একাউন্ট এ প্রতি মাসে নির্দিষ্ট হারে সুদ বা মুনাফা যোগ হবে।


নগদ এর এই মুনাফা একাউন্ট চালু করতে হলে প্রথমে গুগল প্লে স্টোর থেকে নগদ এর অফিসিয়াল এপস টা নামাতে হবে। এরপরে পাসওয়ার্ড দিলে নগদ এর হোম পেজে নিয়ে আসলে ডান পাশে কত গুলো মেনু বার রয়েছে। ঐ মেনু বার এ টাচ করলে একটি ফিটার পাওয়া যাবে।


আপনার একাউন্ট এর ধরন কি? একটি অপশন থাকবে ইসলামিক আরেকটি থাকবে মুনাফা একাউন্ট। এখন এখান থেকে আপনি মুনাফা অপশন টি চালু করে দিলে প্রতি মাসে আপনার একাউন্ট এ নির্দিষ্ট হারে নগদ মুনাফা বলা সুদ যোগ হবে।


এছাড়াও নগদ এর মুনাফা বলা সুদ এর সার্ভিস সম্পর্কে আরো জানতে তাদের হট লাইন নাম্বার এ কল করে জানতে পারবেন।

নগদ এর মুনাফা বা সুদ এর হট লাইন নাম্বার ০৯৬ ০৯৬ ১৬১৬৭ অথবা ফোন করতে পারেন ১৬১৬৭ এই নাম্বার।



নগদ উদ্যোক্তা কি? | Nagad Uddokta কি?

নগদ এর সেবা সর্বত্র পৌঁছে দেওয়ার লক্ষে নগদ উদ্যোক্তা নামে একটি সার্ভিস চালু করে। যাতে নগদ এর সেবা দ্রুত এবং সহজ হয়। নগদ উদ্যোক্তা একাউন্ট এর মাধ্যমে সাধারণ নগদ ব্যবহারকারী রা বিভিন্ন পরিষেবা দৈনন্দিন আর্থিক লেনদেনের প্রয়োজন মেটাতে সহজ বোধ করে।


নগদ উদ্যোক্তা একাউন্ট খুলতে হলে আপনাকে আগে একটা দোকান থাকতে হবে। সেই সাথে আপনার ব্যবসার ট্রেড লাইসেন্স এর প্রয়োজন পরবে। যদি আপনার একটি জাতীয় পরিচয় পত্র বাআইডি কার্ড, একটি দোকান আর ট্রেড লাইসেন্স থাকে তাহলে নিকটস্থ যেকোনো এজেন্ট এ গিয়ে আপনি আপনার আই ডি কার্ড দিয়ে খুব সহজেই নগদ উদ্যোক্তা একাউন্ট খুলতে পারবেন।


নগদ উদ্যোক্তা একাউন্ট খুলার পরে আপনি পি টু পি নাম্বারে সেন্ড মানি, ক্যাশ আউট, ক্যাশ ইন, মোবাইল রিচার্জ সহ আরো কয়েকটি সেবা পাবেন। নগদ উদ্যোক্তা একাউন্ট থেকে খুচরা বা পারসোনাল নাম্বারে টাকা পাঠাতে পারবেন এবং পারসোনাল নাম্বার থেকে টাকা আনতে পারবেন। এক কথায় নগদ উদোক্তা একাউন্ট হলো এজেন্ট একাউন্ট।


নগদ একাউন্ট দিয়ে কি কি বিল পরিশোধ করা যায়?

বর্তমানের যুগ হলো ডিজিটাল যুগ। অন্য সব দেশের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশ ও অনেক এগিয়ে যাচ্ছে। যে কারণে এখন আর কোথাও গিয়ে লাইনে দাড়িয়ে কোন কিছুর বিল দিতে হয় না।


এখন ঘরে বসেই নগদ একাউন্ট দিয়ে খুব সহজেই যেকোনো ধরনের বিল পরিশোধ করা যায়। যেমন, পানির বিল পরিশোধ, বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ, ইন্টারনেট বিল পরিশোধ, গ্যাস বিল পরিশোধ সহ এমনকি রাজস্ব বোর্ডের আয়কর ও দেওয়া যায় এই নগদ একাউন্ট এর মাধ্যমে।


তাছাড়া যেকোনো ধরনের অনলাইন কেনা কাটা করার জন্য নগদ একাউন্ট ব্যবহার করে বিল পরিশোধ করলে পাওয়া যায় বিশেষ ছাড়। এছাড়াও কোন ধরনের দাতব্য সংস্থায় ডোনেশন ও করা যায় এই নগদ এপস এর মাধ্যমে। যেকোনো পরিস্থিতি কিংবা যেকোনো মুহুর্তের মধ্যেই ব্যাংক থেকে টাকা আনা যায় নগদ একাউন্ট এর মাধ্যমে।


খুব সহজেই নগদ একাউন্ট দিয়ে এ রকম আরো অনেক ধরনের বিল পরিশোধ সহ আর্থিক লেনদেন করা যায়। ডাক বিভাগের ডিজিটাল আর্থিক লেনদেন সেবা নগদ এখন আমাদের জিবন যাত্রার মান কে অনেক এগিয়ে দিয়েছে। এখন আমরা যেকোনো সময় যেকোনো মুহুর্তে আর্থিক লেনদেন করতে পারি মেবাইল এর মাধ্যমে। যা আমাদের জীবন যাত্রার মান অনেক বাড়িয়ে দিয়েছে।


নগদ একাউন্টের সুবিধা গুলো কি কি?

ডাক বিভাগের ডিজিটাল আর্থিক লেনদেন বিষয়ক সেবা প্রতিষ্ঠান নগদ বা সরকারী আর্থিক লেনদেন সেবা নগদ হওয়ায় সাধারণ জনগনের জন্য কয়েকটি ভালো সুযোগ সুবিধা রয়েছে।


নগদ একাউন্ট এর কয়েকটি ভালো সুযোগ সুবিধা আছে তার মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখ্যযোগ্য হলো নগদ এর ক্যাশ আউট চার্জ, ক্যাশ ইন চার্জ, সেন্ড মানি চার্জ, বোনাস ও নিরাপত্তা থেকে সব কিছুতেই অন্য যেকোনো আর্থিক লেনদেন সেবার থেকে চার্জ কম।


নগদ এর প্রতি হাজারে লেনদেন করলে ৯.৯০ পয়সা করে চার্জ কাটে। যেখানে অন্যান্য আর্থিক লেনদেন সেবা প্রতিষ্ঠান হাজারে ১৫ টাকা থেকে ২০ টাকা করে চার্জ নেন। এছাড়া ও নগদ সরকারের একটি প্রতিষ্ঠান হওয়ায় নিরাপত্তা যেকোনো সেবা প্রতিষ্ঠান এর চাইতে সবচেয়ে বেশি।


এছাড়াও নগদ একাউন্ট এর মাধম্যমে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ, ইন্টারনেট বিল পরিশোধ, পানির বিল পরিশোধ, গ্যাস বিল পরিশোধ, রাজস্ব বোর্ডের আয়কর দেওয়া সহ আরো অনেক ধরনের সেবা রয়েছে। যে গুলো নগদ একাউন্ট এর মাধ্যমে পরিশোধ করা যায়।


কেন না নগদ সরকারী হওয়ায় তাদের লেনদেন ব্যবস্থা গুলোর নিরাপত্তা কে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়। নগদ এর সবচেয়ে সেরা সুবিধা হলো এদের চার্জ হাজারে সবচেয়ে কম। তাড়াছা নগদ তাদের নতুন নগদ একাউন্ট ব্যবহার কারীদের জন্য যেমন প্রথম নগদ এ আসলে ১০০ টাকা বোনাস দেয়।


ঠিক তেমনি নগদ উদ্যোক্তা দের জন্য চালু করেছে লাখপতি হওয়ার মত অফার। নগদ এর রয়েছে বিভিন্ন অনলাইনে কেনা কাটায় বিশেষ ছাড়। এছাড়াও নগদ একাউন্ট থেকে বিভিন্ন ধরনের বিল পরিশোধ করা যায় খুব সহজেই। আর যেকোনো সময় যেকোনো মুহুর্তে ব্যাংক থেকে টাকা আনতে পারবেন খুব সহজেই। 


আর বাংলাদেশে একমাত্র নগদ একাউন্ট ই মুসলমানদের জন্য সুদ ও মুনাফা ছাড়া বা মুক্ত সেবা ইসলামিক নগদ একাউন্ট চালু করেছে। আবার সুদ ও মুনাফা একাউন্ট ও চালু করেছে।যার মাধ্যমে মাস শেষে একটা নির্দিষ্ট পরিমান টাকার মুনাফা আপনার একাউন্টে যোগ হয়ে যাবে। 


নগদ একাউন্টের অসুবিধা গুলো কি কি?

নগদ একাউন্ট এর যেমন আছে বিভিন্ন সুবিধা ঠিক তেমনি আছে কয়েকটি অসুবিধা। নগদ একাউন্ট এর সবচেয়ে বড় সমস্যা হলো যেখানে সেখানে নগদ উদ্যোক্তা বা নগদ এজেন্ট না থাকা। যেহেতু নগদ একটি নতুন ই বলা যায়, নতুন সেবাা প্রতিষ্ঠান সে জন্য দেশের সব জায়গায় ভালো করে এখন ও সব ধরনের নগদ সেবা পাওয়া সহজ হয়ে ওঠেনি।


নগদ একাউন্ট দিয়ে আপনি নির্দিষ্ট পরিমান টাকা প্রতি মাসে লেনদেন করতে পারবেন। নগদ কতৃপক্ষ কোন ধরনের অনৈতিক লেনদেন কর্মকাণ্ড আপনার একাউন্ট এ পেলে যেকোনো সময় আপনার একাউন্ট বন্ধ করে দিতে পারেন।


নগদ একাউন্ট থেকে কোন হ্যাকার আপনার কাছ থেকে পিন ও ভেরিফিকেশন কোড নিয়ে আপনার সব টাকা হাতিয়ে নিতে পারে। মাঝে মাঝে নগদ কতৃপক্ষ এসব বিষয় নজরদারি করতে পারে না যেকারণে যেকোনো সময় একটু ভুলে চলে যেতে পারে আপনার সব টাকা। বর্তমানের এই ডিজিটাল যুগে সব সময় নিরাপদে থাকতে বা টাকা নিরাপরে রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়িয়ে।


নগদ একাউন্ট পাসওয়ার্ড রিকোভার?

অনেকের ই কমন একটা প্রশ্ন হলো যে, আমি কিভাবে আমার নগদ একাউন্ট এর পাসওয়ার্ড পুনরুদ্ধার করতে পারি?

কোন কারনে অথবা কোন ভুলের কারণ আপনি যদি আপনার নগদ অ্যাকাউন্টের পিন ভুলে গিয়ে থাকেন তবে চিন্তা করার কোন কারন নেই।


কেন না খুব সহজেই নগদ এর পিন বা পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে বা হারিয়ে গেলে আবার ফিরে পেতে পারবেন। নগদ একাউন্ট এর পিন বা পাসওয়ার্ড ভুলে বলা হারিয়ে গেলে *১৬৭# (*167#) ডায়াল করে আবার মানুয়ালি পিন রিসেট করতে পারবেন। এছাড়া ও কোন কারনে পিন বা পাসওয়ার্ড ঠিক করতে না পারেন।


তাহলে নগদ এর অফিসিয়াল কাস্টমার সার্ভিস সেন্টার এ ফোন করে নতুন পাসওয়ার্ড দিতে পারবেন। নগদ এর কাস্টমার সার্ভিস সেন্টার থেকে আপনার পাসওয়ার্ড ও পিন ঠিক করতে চাইলে নগদ কাস্টমার সার্ভিস সেন্টার এর কর্মীরা আপনার কাছে কয়েকটি তথ্য জানতে চাইবে।


তখন আপনার নগদ একাউন্ট টি যার মাধ্যমে যার এনআইডি কার্ড দিয়ে রেজিষ্ট্রেশন করেছেন তার এনআইডি নাম্বার  ও তাকে প্রয়োজন পড়বে। নগদ কাস্টমার সার্ভিস সেন্টার এ কল করার পরে খুব সহজেই আপনি আপনার পাসওয়ার্ড ঠিক করতে পারবেন।


নগদ একাউন্ট বন্ধ হয়েছিলো কেন?

মোবাইল আর্থিক লেনদেন সার্ভিস নগদ অনলাইন ই-কমার্স সাইট গুলির সাথে প্রতারণামূলক লেনদেনের সন্দেহে প্রায় ১৩,০০০ অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়।

তদন্ত কর্তৃপক্ষ থেকে জানা যায় যে, অ্যাকাউন্টের সংখ্যা ১৩ হাজারের বেশি এবং বেশিরভাগ অস্বাভাবিক লেনদেনই ঘটেছে "সিরাজগঞ্জ সপ" নামের একটি অনলাইন স্টোর এর সাথে।


এছাড়া এরকম আরো কয়েকটি ই কমার্স সাইট এর কারনে নগদ প্রায় ১৩ হাজারের মত নগদ একাউন্ট বন্ধ করে দেয়। কেন না ঐসব একাউন্ট দিয়ে "সিরাজগঞ্জ সপ" সহ আরো কয়েকটি অনলাইন স্টোর থেকে অবৈধ লেনদেন করা হয়েছিলো। এছাড়াও বন্ধ হওয়া একাউন্ট গুলো তদন্তের জন্য গোয়েন্দারা নির্বাচন করে দিয়েছে বলে জানা যায়।


নগদ একাউন্ট কাস্টমার সার্ভিস নাম্বার

নগদ এর কাস্টমার সার্ভিস এর সেবা রাত দিন ২৪ ঘন্টা সপ্তাহে ৭ দিন ই চালু থাকে। নগদ বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন বা সাহায্যের জন্য যেকোনো অপারেটর থেকে ফোন করতে পারবেন নগদ কাস্টমার সার্ভিস সেন্টার এ। নগদ এর কাস্টমার সার্ভিস এর হট লাইন নাম্বার হলে ১৬১৬৭ (16167)।

এছাড়া নগদ এর কাস্টমার সার্ভিস সেন্টার এ কল করে যেকোনো কিছু জেনে নেওয়া যাবে। নগদ এর কাস্টমার সার্ভিস সেন্টার এর ফোন নাম্বার হলো; ০৯৬০৯৬১৬১৬৭ (09609616167)।


'নগদ' একাউন্ট নিয়ে যেকোনো ধরনের সমস্যা বা সাহায্যের জন্য নগদের ইমেইল ঠিকানা ব্যবহার করতে পারেন। নগদ এর অফিসিয়াল ইমেইল ঠিকানা হলো;  [email protected]

বাংলাদেশের ঢাকার কামাল আতাতুর্ক এভিনিউতে অবস্থিত সদর দপ্তর অবস্থিত। যে কোনো সমস্যা বা সাহায্যের জন্য নগদ এর প্রধান কার্যালয়ে যেতে পারবেন।


নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম,নগদ একাউন্ট খোলার পদ্ধতি,নগদ একাউন্ট ব্যালেন্স দেখার নিয়ম,নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম,নগদ,নগদ একাউন্ট চেক,কিভাবে নগদ একাউন্ট করব,নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম,নগদ একাউন্ট ব্যালেন্স চেক,ussd কোড ডায়াল করে নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম,নগদ একাউন্ট,নগদ একাউন্ট কার নামে,নগদ একাউন্ট খোলা,নগদ একাউন্ট খুলার পদ্ধতি,আইডি কার্ড ছাড়া নগদ একাউন্ট,মোবাইল দিয়ে নগদ একাউন্ট,নগদ একাউন্ট পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন,নগদ একাউন্ট খোলার পদ্ধতি ২০২১

Next Post Previous Post
No Comment

You cannot comment with a link / URL. If you need backlinks then you can guest post on our site with only 5$. Contact

Add Comment
comment url

Bottom sticky ads

Footer Ads